রাজ্যের করা ডিএ মামলায় গরহাজির সরকার পক্ষের আইনজীবী

নিউজ ডেস্ক: মামলা করেছে রাজ্য, এদিকে আদালতে অনুপস্থিত সরকার পক্ষেরই আইনজীবী। ডিএ মামলায় স্যাট রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছিল ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে বকেয়া ডিএ মেটাতে হবে। ওই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে গিয়েছিল রাজ্য। তবে এদিন মামলার শুনানিতে গরহাজির থাকল রাজ্যের আইনজীবীরাই।

স্যাটের নির্দেশ ছিল, ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার আগে ২০০৬ থেকে যাবতীয় বকেয়া মিটিয়ে দিতে হবে সরকারি কর্মীদের। রাজ্য অবশ্য সেই নির্দেশ মানেনি। যার জেরে আদালত অবমাননার মামলা করেিছল সরকারি কর্মচারী সংগঠন। এরপর ২৬ জুলাই, ২০১৯-এ স্যাট রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছিল, পরবর্তী ছ’মাসের মধ্যে ডিএ দিয়ে দিতে হবে। এদিকে রাজ্য রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করে।

গত জুলাই মাসের ৮ তারিখ স্যাট রাজ্য সরকােরর আবেদন খারিজ করে দিয়ে জানিয়ে দেয় বকেয় ডিএ দিতেই হবে। এরপর গত ২৩ সেপ্টেম্বর স্যাট জানিয়ে দেয়, ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে ডিএ মেটাতেই হবে। ১২ ডিসেম্বর এই শুনািন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরে তা পিছিয়ে ১৬ ডিসেম্বর ঠিক করা হয়। বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের ডিভিশন বেঞ্চ এই দিনটি ঠিক করেছিলেন। সেই মতো এদিন বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে শুনানি হলেও উপস্থিত ছিলেন না রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল বা অতিরিক্ত অ্যাডভোকেট জেনারেল। মামলার পরবর্তী শুনািনর সম্ভাবনা বৃহস্পতিবার।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles