Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

‘গোঁড়ামির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন, তাই এত শত্রু’, অর্মত্য সেনকে চিঠি মমতার

নিউজ ডেস্ক: অমর্ত্য সেনের বাড়ির জমির একাংশ বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের। এই মর্মে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে অভিযোগপত্র দিয়েছে বিশ্বভারতী। বিষয়টি নিয়ে বিরোধিতা করে বৃহস্পতিবারই সুর চড়িয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার সরাসরি অমর্ত্য সেনকে চিঠি লিখলেন তিনি। দাবি করলেন, ‘দেশজুড়ে সংখ্যাগরিষ্ঠের গোঁড়ামির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন আপনি। তাই অপশক্তিগুলি আপনার শত্রু হয়ে উঠেছে। এই লড়াইয়ে আপনার পাশে রয়েছি।’

শান্তিনিকেতনে অমর্ত্য সেনের বাড়ি ‘প্রতীচী’ নিয়ে বিতর্কে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদকে দেওয়া চিঠিতে বিজেপির নাম উল্লেখ করেননি মমতা। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘‘শান্তিনিকেতনের সঙ্গে আপনার পরিবারের গভীর যোগসূত্র সকলেই জানেন। আট দশক আগে শান্তিনিকেতনে প্রতীচী বাড়িটি নির্মাণ করেছিলেন আপনার বাবা আশুতোষ সেন। এখন আপনার পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে ভিত্তিহীন ও বিস্ময়কর অভিযোগ করছে বিশ্বভারতীর অধুনা কিছু বহিরাগত। এটা আমায় কষ্ট দিয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠ গোঁড়ামির বিরুদ্ধে আপনি লড়াই করছেন। তা করতে গিয়ে অপশক্তিগুলির শত্রু হয়ে উঠেছেন আপনি। এই লড়াইয়ে আমি আপনার পাশে। অসহিষ্ণুতা ও একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আপনার বোন ও বন্ধু হিসেবে পাশে আছি। ওদের মিথ্যা অভিযোগ ও অসত্য আক্রমণে দমবেন না। আমরা জয় করবই।’’

যদিও এর আগেই বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘‘অমর্ত্য সেনকে নিয়ে গর্ব করেন বাংলার মানুষ। আপনারা বিশ্বাস করেন, অমর্ত্য সেন শান্তিনিকেতনের জমি দখল করবেন! তাঁর পরিবার ৭০-৮০ বছর রয়েছে সেখানে। যাঁরা বলছেন, তাঁরা বাংলাকে কতটা চেনেন?’’ এখানেই শেষ নয়, বোলপুরের মিছিলে বিদ্যাসাগর, রবীন্দ্রনাথ ও অমর্ত্য সেনের অসম্মানের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবেন বলেও জানিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles