ট্যাবের বদলে টাকা পড়ুয়াদের, সরকারি কর্মীদের ভাতা ও বেতন বৃদ্ধি

নিউজ ডেস্ক: ভোটের আগে কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সরকারি কর্মীদের ভাতা ও বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা করলেন মঙ্গলবার। পাশাপাশি স্কুল পড়ুয়াদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি ১০ হাজার টাকা করে পাঠানো হবে বলেও জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।

আনলক পর্বে সবকিছু খুললেও এখনও বন্ধ স্কুল-কলেজ। তবে পড়ুয়াদের অনলাইন ক্লাস চলছে। কিন্তু ফোন বা ইন্টারনেট না থাকার কারণে অনেকেই এভাবে পড়াশোনা করতে পারছে না। তাই মমতা ঘোষণা করেছিলেন রাজ্যের সাড়ে ৯ লক্ষ পড়ুয়াকে ট্যাবলয়েড দেওয়া হবে। কিন্তু অত পরিমাণ ট্যাব জোগাড়ে সমস্যা হয়। প্রথমে টেন্ডার ডাকা হয়েছিল। কিন্তু কোনও সংস্থা একসঙ্গে এত সংখ্যক ট্যাব সরবরাহ করতে পারবে না বলে জানায়। মেরেকেটে দেড় লক্ষ ট্যাব জোগাড় করা সম্ভবপর বলা হয়। এদিকে চিনা ট্যাব কেনার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্র সরকার। তাই ট্যাবের বদলে সরকারি স্কুল ও মাদ্রাসার প্রত্যেক পড়ুয়াকে ১০ হাজার টাকা দেবে সরকার। যা দিয়ে পড়ুয়ারা নিজেরাই ট্যাব বা মোবাইল ফোন কিনে নিতে পারবেন। আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে সরাসরি পড়ুয়াদের অ্যাকাউন্টে ওই টাকা পৌঁছে যাবে বলে জানিয়েছেন মমতা।

এদিন নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘দুয়ারে সরকারের কর্মীরা অত্যন্ত ভাল কাজ করছেন।’’ তাদের কাজের প্রশংসার পাশাপাশি তিনি তাদের জন্য মাসিক ৫ হাজার টাকা টিফিন ভাতারও ঘোষণা করেন। তিনি আরো জানান, যারা দিন-রাত এক করে সরকারের এই প্রকল্পকে বাস্তবায়িত করছেন তাদের শংসাপত্রও দেওয়া হবে। পাশাপািশ প্রাণিবন্ধু ও প্রাণিমিত্র হিসাবে কাজ করা কর্মচারীদের ভাতা দেড় হাজার টাকা থেকে প্রায় দ্বিগুন করে তিন হাজার টাকা করার কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। ভিআরপিরা অনেকদিন ধরেই ৩০ দিনের ভাতার দাবি জানাচ্ছিলেন। সেই দাবি মেনে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, ভিআরপিদের ভাতা বাড়িয়ে ৫ হাজার ২৫০ টাকা করা হল। যদিও সোমবারই এই ঘোষণা করেছিলেন একদফা।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles