রাজ্যের এক কোটি পরিবারের দুয়ারে পৌঁছল মমতার সরকার

নিউজ ডেস্ক: বাংলার এক কোটি ঘরে পৌঁছে গেল ‘দুয়ারে সরকার’। অভিযানের এই আঠারো দিনের মধ্যেই এই সাফল্য পেল রাজ্য সরকার। এ পর্যন্ত যা খবর, তাতে আবেদনের ভিত্তিতে এগিয়ে রয়েছে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পই। তবে এই একই কাউন্টার থেকে বিধবাভাতা, বার্ধক্যভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতার মতো বিভিন্ন সরকাির প্রকল্পের সুিবধা মিলছে।

পয়লা ডিসেম্বর থেকে চারটি পর্যায়ে টানা দু’মাস রাজ্যের প্রতিটি কোণে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প বসবে। প্রতিটি ব্লকে নির্দিষ্ট সময় অন্তর, সব মিলিয়ে ২২ হাজার শিবির হবে বলে সরকাির তরফে জানােনা হয়েছে। যেখানে গিয়ে যে কোনও সরকাির প্রকলেপ্র আবেদন জানিয়ে নাম নথিভুক্ত করছেন সাধারণ মানুষ। এই মুহূর্তে এক কোটি পরিবার এই সুিবধা মিলেছে। যদি এক কোটি মানুষ যদি সঠিক পরিষেবা পান, তাহলে তাঁদের সঙ্গে যুক্ত পরিবারের অন্যরাও উপকৃত হবেন ধরে নেওয়া যায়। এবং সাফল্যের নিরিখে এটা কম কিছু নয়। বিশেষত একুশের বিধানসভা ভোটের প্রেক্ষিতে ব্যাপারটা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সরকারের আরও কাছে মানুষকে এনে দেওয়ার কাজটা করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। শিবিরে দেখা যাচ্ছে, বহু মানুষ ক্ষোভপ্রকাশ করছেন, বিতণ্ডায় জড়াচ্ছেন। তা সত্ত্বেও সরকারের সুিবধা নিচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

এ নিয়ে অবশ্য বিজেপি নানা সময় কটাক্ষ করতে ছাড়েনি। কিন্তু মানুষের কাছে এভাবে সরাসরি সরকারি পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগকে সাধুবাদও জানিয়েছে নানা মহল। প্রথমে প্রশাসনকে জেলায় নিয়ে যাওয়া এবং এখন সরকারকে মানুষের দুয়ারে নিয়ে যাওয়ার মতো অভিনব ভাবনার সুবাদে সরকারি পরিষেবা তৃণমূল স্তরে পৌঁছনো সহজ হয়েছে বলে জানাচ্ছেন রাজ্য প্রশাসনের কর্তারাও।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles