Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

মমতার বাড়ির সামনে ‘দুয়ারে সরকার’-এর কর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ পুলিশের

নিউজ ডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনেই পুর-স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ করল পুলিশ। শুধু তাই নয়, তিন দফা দািব নিয়ে স্মারকলিপি দিতে আসা পুরকর্মীদের আটক করে তোলা হল পুলিশ ভ্যানে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসিয়ে রাখা হল থানায়। মঙ্গলবার এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল হাজরা মোড়ে।

এক, গ্রামীণ আশাকর্মীদের মতো অবসরকালীন ৩ লক্ষ টাকা করে ভাতা তাঁদেরকেও দিতে হবে। দুই, তাঁদেরও অবসরের সময়সীমা ৬৫ বছর করতে হবে। তিন, ন্যূনতম বেতন ২১ হাজার টাকা করতে হবে। মূলত এই দাবি নিয়েই মঙ্গলবার পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কালীঘাটের বাড়ির কার্যালয়ে একটি স্মারকলিপি জমা দিতে যাচ্ছিলেন কয়েকশো পুর-স্বাস্থ্যকর্মী। যাদের বেশিরভাগেরই বয়স চল্লিশের ওপরে। ছিেলন অনেক মহিলাও। অভিযোগ, তাঁদের কর্মসূচি শুরু হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিস এসে তাঁদের ঘিরে ধরে। তবে কোনও মহিলা পুলিশকর্মী ছিলেন না।

‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিচ্ছেন পুর-স্বাস্থ্যকর্মীরা। ‘ন্যাশনাল আর্বান হেলথ মিশন’এর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যাবতীয় প্রকল্পের প্রথম সারির কর্মী তাঁরা। কিন্তু তাঁদের ওপরই পুলিসের এহেন আচরণে নিন্দার ঝড় উঠেছে। আগামী দিনে তাদের পূরণ না হলে তাঁরা ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচিতে অংশ নেবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার কর্মসূচিতেও তাঁরা অংশ নেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। আগামিতে বৃহত্তর আন্দোলন হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles