Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

তেল উত্তোলন মানচিত্রে নাম জুড়ল অশোকনগরের, পথ চলা শুরু আজ থেকেই

নিউজ ডেস্ক: অশোকনগরে বাইগাছি মৌজায় বাণিজ্যিক তৈল উৎপাদন কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। দেশের পশ্চিম উপকূলে তেলের সন্ধান পাওয়া গেলেও, পূর্ব ভাগে এই প্রথম পেট্রোলিয়াম তেলের বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হল অশোকনগরে। মাস কয়েক আগে তেলের মান পরীক্ষা করে সাফল্য পায় ওএনজিসি। ৭০ বছরের খোঁজের বানিজ্যিক সফলতা এল রবিবার।

অশোকনগরে মাটির তলায় প্রায় ২২০০ মিটার নিচে রয়েছে তেল। আর তার নিচে ২৩০০ মিটারের তলায় রয়েছে গ্যাস। আপাতত বানিজ্যিক ভাবে তেল উত্তোলন শুরু হলেও, অচিরেই গ্যাসের উত্তোলন শুরু হবে এদিন জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। ধর্মেন্দ্র প্রধান বলেন, ‘‘ইতিমধ্যেই ৪ একর জমি নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে প্রকল্প। ব্যয় হয়ে গিয়ছে ৩৪০০ কোটি টাকা। এই প্রকল্পের জন্য প্রয়োজন আরও ১২ একর জমি। তাঁর দাবি, এই প্রকল্প মাধ্যমে বাংলার অর্থনীতিতে বড়সড় পরিবর্তন আসবে। একইসঙ্গে স্থানীয় মানুষের কাজের সুযোগ বাড়বে। অগ্রাধিকার দেওয়া হবে স্থানীয়দের। এই প্রকল্প বিস্তারের জন্য রাজ্যের জমি নীতি মেনেই প্রয়োজনীয় জমি নেওয়া হবে ঘোষনা প্রধানের।

ওএনজিসি সূত্রে জানা গিয়েছে, ৭৩৯ বর্গকিলোমিটার এলাকায় তেল ও গ্যাসের ভান্ডার রয়েছে। বেঙ্গল বেসিনে তেল ও গ্যাসের ভান্ডার আবিষ্কার হওয়া সামগ্রিক বাংলার অর্থনীতিতে ব্যাপক উন্নতি হবে। এই বেসিন সোনার বাংলা গড়তে বড় ভূমিকা নেবে বলে মত মন্ত্রীর। একইসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘পূর্ব ভারতে গঙ্গা ব্রম্ভপুত্র ও দামোদর অববাহিকায় আরও তেল এবং গ্যাসে অনুসন্ধান করা হবে। আত্মনির্ভর ভারত গড়তে এই প্রকল্প একটি বড় ভূমিকা নেবে বলে মত ধর্মেন্দ্র প্রধানের। তিনি জানান, বর্তমানে দেশকে ৮৫ শতাংশ জ্বালানি তেল আমদানি করতে হয়। এই ভাবে দেশের তেলের ভান্ডার খুঁজে পেলে লাভ হবে দেশের।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles