চিনকে শায়েস্তা করতে নৌকা মোতায়েন ভারতের

নিউজ ডেস্ক: চিন যাতে বেশি মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে তাই আগাম সতর্কতা হিসেবে ভারত- চিন সীমান্তবর্তী প্যাংগং হ্রদ এলাকায় নজরদারি জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় সরকার। এবার অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি এক ডজন অত্যাধুনিক নৌকো কেনার চুক্তি করল ভারতীয় সেনা। উচ্চ গতিসম্পন্ন এই নৌকাগুলিতে প্রয়োজনীয় আধুনিক সমস্ত সরঞ্জাম মজুত থাকবে যাতে প্রয়োজনমতো চিনা শক্তির মোকাবিলা করা যায়। নৌকাগুলি মূলত টহল দেবে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা এবং প্যাংগং হ্রদ সংলগ্ন অঞ্চলে।

বেশ কিছু মাস ধরেই ভারতের ওপর আগ্রাসন চালাচ্ছে চিন। সীমান্তবর্তী এলাকায় চিন সরকার সমানে সেনা মোতায়েন করে যাচ্ছে। খুব শীঘ্র যে পরিস্থিতি উন্নতি হবে সেরকম কোনও সম্ভাবনাও নেই। তাই ৩১ ডিসেম্বর রাষ্ট্রায়াত্ত সংস্থা গোয়া শিপইয়ার্ড লিমিটেডকে ১২টি নৌকার বরাত দেওয়া হয়েছে। এই চুক্তি মূল্য প্রায় ৬৫ কোটি টাকা। এর আওতায় আগামী ৪ বছর নৌকার অতিরিক্ত সরঞ্জাম এবং রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বও গোয়া শিপইয়ার্ডের হাতে দেওয়া হয়েছে। ২০২১ সালের মে মাস থেকেই তারা নৌকা সরবরাহ শুরু করবে।

 

সেনাসূত্রে জানা গিয়েছে, বছর ঘুরতে চললেও প্রায় ১৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ প্যাংগং হ্রদের উত্তর ও দক্ষিণ তীরে এখনও মুখোমুখি অবস্থান করছে ভারত ও চিন সেনা। দফায় দফায় আলোচনাতেও কোনও সুরাহা মেলেনি। তাই চিনের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী সংঘাতেরই প্রস্তুতি শুরু করেছে ভারত। এই মুহূর্তে প্রচণ্ড ঠান্ডায় জমে গিয়েছে প্যাংগং হ্রদ। তবে কয়েকমাস পরে পারদ ঊর্ধ্বমূখী হলেই বরফ গলতে শুরু করবে। সেইসময় থেকে সরাসরি যাতে প্যাংগং হ্রদেই নৌকাগুলি মোতায়েন করা যায় তারই প্রস্তুতি শুরু করেছে ভারত সরকার।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles