কেক খাওয়ার রীতি চালু হল কী ভাবে?

নিউজ ডেস্ক: বড়দিন বলতেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে সান্তাক্লজ, ক্রিসমাস ট্রি আর যা বাদ দিলে অসম্পূর্ণ থেকে যায় এই বড়দিনের উৎসব, তা হল কেক। বড়দিনের সঙ্গে কেক খাওয়ার যেন ওতপ্রোত সম্পর্ক আছে। বড়দিন এলেই তাই বাজার ছেয়ে যায় নানান রকমের কেক। নিউমার্কেটে নাহুমের কেকের দোকানে মানুষের লাইন দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়। কিন্তু কোথা থেকে এল বড়দিনে এই কেক খাওয়ার রীতি?

বহু আগে ক্রিসমাসের আগের দিন উপবাসের নিয়ম চালু ছিল। আর এই উপবাস ভাঙা হত প্লাম পরিজ খেয়ে। উপবাসের পর শরীর সুস্থ রাখার জন্য যেমন গুড়জল খাওয়া হয়, প্লাম পরিজও তেমনই একটি তরল। যা খেলে শরীর সুস্থ থাকত। পরবর্তীকালে dry fruit দিয়ে প্লাম পরিজ তৈরি হত। মসলা, মধুর সহযোগে পরে যা পুডিং হয়ে যায়। ষোড়শ শতাব্দীতে ময়দা‚ চিনি আর ডিম দিয়ে সিদ্ধ প্লাম কেক তৈরি শুরু হয়| সে আমলে অপেক্ষাকৃত ধনী ব্যক্তিদের কাছে ওভেন থাকত। তারা ইস্টারের কেকের স্টাইলে dry fruit আর প্রাচ্যের মশলা দিয়ে আজকের প্রচলিত ক্লাসিক ক্রিসমাস কেক বানাতেন।

কালের নিয়মে ক্লাসিক ক্রিসমাস কেকের অনেক বৈচিত্র এসেছে| তবে ক্রিসমাসের সময় কেক খাওয়ার মজাই আলাদা। আট থেকে আশি সকলেই বড়দিন এলে মজেন কেক-এ। তবে এবছর করোনা আবহে সংকটকালীন পরিস্থিতিতে অনেকেই বাড়ির বাইরে না বেরিয়ে ঘরেই পালন করবে ক্রিসমাস।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles