বার্ড ফ্লু নিয়ে উদ্বিগ্ন কেন্দ্র, আজ সংসদীয় কমিটির বৈঠক

বীরেন ভট্টাচার্য, নয়াদিল্লি

করোনা আবহের মধ্যেই দেশে ছড়াচ্ছে বার্ড ফ্লু। দিল্লি, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ-সহ ৯টি রাজ্যে ছড়িয়েছে এই সংক্রমণ। ফলে অতিমারীর আবহে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ায় উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় সরকার। আজ সোমবার বিকেল ৩টেয় প্রাণিসম্পদ মন্ত্রকের সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছে, বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য মন্ত্রকের আধিকারিকদের ডেকে পাঠানো হয়েছে। আজকের আলোচনায় খতিয়ে দেখা হবে টিকার বন্দোবস্ত। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি পাখির মৃত্যু হয়েছে হরিয়ানায়। জানা গিয়েছে, গত সপ্তাহে, ৪ লক্ষ পাখির মৃত্যু হয়েছে। সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর এবং ছত্তিশগড়ের মতো রাজ্যগুলিকেও।

সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে ইতিমধ্যেই দিল্লির গাজিপুরের পোলট্রি ফার্ম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সংক্রমণ যাতে দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে, তারজন্য ইতিমধ্যেই ব্যাপক পদক্ষেপ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। মহারাষ্ট্রের পারভানি এলাকা থেকে সংক্রমণ ছড়িয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আজ সন্ধ্যায় সে রাজ্যের সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে চিড়়িয়াখানা, পোলট্রি ফার্ম-সহ বিভিন্ন জায়গাগুলিতে থাকা পাখিদের ওপর নজরদারির করার জন্য। রবিবার এক বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় প্রাণিসম্পদ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা এবং বার্ড ফ্লু নিয়ে যাতে সাধারণ মানুষের মধ্যে ভুল তথ্য না ছড়ায়, সেদিকে নজর রাখার জন্য রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি পাখিদের দেহাংশ সঠিক জায়গায় ফেলারও নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। প্রাণিসম্পদ মন্ত্রকের তরফে আরও জানানো হয়েছে, হরিয়ানার পঞ্চকুল্লার দুটি পোলট্রি ফার্ম থেকে যে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, তাতে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা পাওয়া গিয়েছে। সেখানে ইতিমধ্যেই মোতায়েন করা হয়েছে ৯টি রাপিড রেসপন্স টিম, তারা সেখানে নজরদারি চালাচ্ছে।

গুজরাতের সুরাত এবং রাজস্থানের সিরোহী জেলায় গরু এবং বন্য পশু ও পাখির শরীরে নমুনায় এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা পাওয়া গিয়েছে। এছাড়াও হিমাচলের কাংরা জেলায় ৮৬টি গরু এবং ২টি সারসের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনার খবর পাওয়া গিয়েছে। প্রাণিসম্পদ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, হিমাচলের নাহান, বিলাসপুর মাণ্ডি জেলায় বন্য পাখির অস্বাভাবিক মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। সেই সমস্ত পাখির শরীরের নমুনা ইতিমধ্যেই পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা যাতে আর না ছড়ায়, তারজন্য ইতিমধ্যেই রাজ্যগুলিকে নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, ‘দিল্লি ও মহারাষ্ট্র থেকে যে নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে, তার রিপোর্ট এখনও আসেনি। ছত্তিশগড়ের বালোড় জেলায় বন্য পাখিদের যে নমুনা পাঠানো হয়েছিল, সেখানে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা পাওয়া যায়নি।’ দেশের যে সমস্ত এলাকায় এই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে, সেখানে নজরদারির জন্য কেন্দ্রীয় দল পাঠানো হয়েছে। পুরো বিষয়টি নজরদারি করেছে তারা।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles