Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

প্রয়াত ভারতের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, শোকবার্তা প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর

নিউজ ডেস্ক: এক রাজনৈতিক অধ্যায়ের সমাপ্তি। প্রয়াত ভারতের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুটা সিং। দীর্ঘদিন বার্ধক্যজনিত শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

ব্রিটিশ ভারতের পঞ্জাবে জন্ম বুটা সিংয়ের। জীবনের প্রথম নির্বাচন অকালি দলের হয়ে লড়লেও তারপর কংগ্রেসে যোগ দেন তিনি। ১৯৬২ সালে সাধনা লোকসভা আসন থেকে প্রথমবারের জন্য লোকসভায় নির্বাচিত হয়ে আসেন তিনি। তারপর ক্রমে তাঁর রাজনীতিক উত্থান ঘটে। ১৯৮৬ থেকে ১৯৮৯ পর্যন্ত ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদেও ছিলেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা মনমোহন সিং। টুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে মোদি লেখেন, ‘বুটা সিং অত্যন্ত অভিজ্ঞ প্রশাসক ছিলেন। গরিবদের জন সবসময় আওয়াজ তুলতেন তিনি। তাঁর প্রয়াণে আমি মর্মাহত। তাঁর পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।’ ট্যুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

পিছিয়ে পড়া শ্রেণির মানুষের জন্য কাজ করতে ভালবাসতেন বুটা সিং। বিহারের রাজ্যপালও ছিলেন একসময়। নিজের রাজনৈতিক জীবনে দেশের একাধিক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়ের সাক্ষী থেকেছেন বুটা সিং। ‘অপারেশন ব্লুস্টার’-এর পর বিধ্বস্ত স্বর্ণমন্দিরকে ফের গড়ে তোলায় তাঁর অবদান ছিল যথেষ্ট। এছাড়া, অযোধ্যায় ইস্যুতে রাজস্থানের প্রাক্তন এই সংসদের ভূমিকা রয়েছে বলে মনে করেন রাজনীতিবিদরা। ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের মতে, অযোধ্যা জমি বিবাদের মামলায় রামলালা বিরাজমানকে আলাদা সত্ত্বা হিসেবে তুলে ধরে আদালতে জমির মালিকানার দাবি জানানোর যুক্তি ছিল বুটা সিংয়ের মস্তিষ্কপ্রসূত পরিকল্পনা। তাঁর প্রয়াণে শোকাহত ভারতীয় রাজনৈতিক মহল।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles