প্রথম চেষ্টায় বিচারক, উদয়পুরের সোনাল শর্মা

নিউজ ডেস্ক: স্বপ্ন যখন তাড়া করে বেড়ায় তখন কোনও কিছুই আটকে রাখতে পারে না। ঠিক যেমনটা হয়েছে সোনালের সঙ্গে। গোয়াল ঘরে বসেই সারাদিন কাটত উদয়পুরের সোনাল শর্মার। গোবরের গন্ধ, গরুর ডাক কোনও কিছই যেন সোনালে কানে আসত না। গোয়ালের এককোণে বসেই চলত তাঁর জুডিসিয়ারি পরীক্ষার প্রস্তুতি। স্বপ্ন দেখতেন বিচারক হবেন। নিজের হাতেই রক্ষা করবেন দেশের আইন-শৃঙ্ঘলা।

মধ্যবিত্ত সংসারে বড় হওয়া সোনাল টিউশনও নিতে পারেননি। বরং সকালেবেলা ঘুম থেকে উঠে বাবাকে গরুর দেখাশোনার কাজে সাহায্য করতেন সোনাল। তারপর একাই সাইকেল চালিয়ে পৌঁছে যেতেন ইউনিভার্সিটি। সময় পেলই লাইব্ররিতে একা একা বসেই পড়াশোনা করতেন তিনি। গোবর লাগানো চটি, আর জামায় গোয়ালের গন্ধ মাঝে মাঝেই বান্ধবীরা পাশে বসত চাইত না সোনালের সঙ্গে। কিন্তু তাতেও কখনও ভেঙে পড়েননি তিনি।বরং তখন লজ্জা লাগলেও এখন দুধওয়ালার মেয়ে বলে গর্ভবোধ করেন সোনাল শর্মা।

২৬ বছরের সোনাল একক চেষ্টাতেই বিএ,এলএলবি,এলএলএম পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন।এক বছরের ট্রেনিংয়ের পর তিনি রাজস্থান জুডিসিয়াল সার্ভিস পরীক্ষায় বসেন। মাত্র এক নম্বরের জন্য প্রথম তালিকায় নাম আসেনি তাঁর। ইন্টারভিউয়ের সময় কয়েকজন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ না করায় তাঁর ডাক আসে। কয়েকদিন পরেই প্রথম ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে যোগ দেবেন সোনাল। মেয়ের এই সাফল্যে স্বভাবতই খুশি মা-বাবা।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles