কাটমানি নেওয়ায় অভিযোগ এ বার বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে, মালদায় সরব তৃণমূল

নিউজ ডেস্ক: কাটমানি ইস্যুতে এবার কাঠগড়ায় বিজেপি। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর পাইয়ে দেওয়ার নাম করে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই বিজেপিকে তীব্র কটাক্ষ করেছে তৃণমূল।

মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নং ব্লকের হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপির সদস্য লালু ওঁরাও। তাঁর বিরুদ্ধে গড়গড়ি এলাকার বাসিন্দা উর্মিলা ওঁরাওয়ের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর পাইয়ে দেওয়ার নাম করে তাঁদের ভুল বুঝিয়ে ২০ হাজার টাকা কাটমানি নিয়েছেন লালু। উর্মিলা ওঁরাও এবিষয়ে থানায় গিয়ে অভিযোগও দায়ের করেছেন। অভিযোগপত্রে লিখেছেন, তাঁকে ভুল বুঝিয়ে কুড়ি হাজার টাকা নেওয়া হয়েছে। এমনকী টাকা না দিলে ঘর দেওয়া হবে না বলে ভয়ও দেখানো হয়েছিল। উর্মিলার কথায়, ‘লালু বলেছিল ঘরের জন্য সরকারি অফিসারদের টাকা দিতে হবে। তিন কিস্তিতে মোট কুড়ি হাজার টাকা নিয়েছিল। ভুল বুঝতে পেরে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছি। কুড়ি হাজার টাকাটা ফেরত পেতে চাই।’

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই লুফে নিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নং ব্লকের তৃণমূল সভাপতি মানিক দাস বলেন, ‘এরা ক্ষমতায় না আসতেই এই অবস্থা। জিরো ব্যালেন্স অ্যাকাউন্ট থেকে শুরু করে বিধবা ভাতার কাগজ, সবেতেই এরা কাটমানি নেয়। এটা কোনও নতুন ঘটনা নয়।’ যদিও অভিযুক্ত পঞ্চায়েত সদস্য লালু ওঁরাও বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এটা তৃণমূলের চক্রান্ত।’

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles