এগিয়ে বাংলা, কেন্দ্রের তথ্যকেই হাতিয়ার করে মোদিকে আক্রমণ অমিতের

নিউজ ডেস্ক: দেশের চেয়ে রাজ্যের আর্থিক বৃদ্ধি বেশি। শুধু তথ্যই দিলেন না, সঙ্গে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ‘মিথ্যাবাদী’ বলেও দাবি করলেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। রবিবার একটি ট্যুইট করে তিনি জানান, মোদি-আমিত শাহ জুটির সময়ে অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভারতের বৃদ্ধির হার নেমেছে। তাঁর দেওয়া তথ্যই বলে দিচ্ছে দেশের থেকে অনেকটা এগিয়ে আছে রাজ্য।

রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রের দেওয়া তথ্যে আর্থিক বৃদ্ধিতে সেখানে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যানের তুলনা টানা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ২০১৯-২০ আর্থিক বর্ষে জিডিপির হিসাবে জাতীয় স্তরে বৃদ্ধির হার ৪.১৮ শতাংশ, সেখানে রাজ্যের বৃদ্ধির হার ৭.২৬ শতাংশ। শিল্প ক্ষেত্রে জাতীয় স্তরে বৃদ্ধির হার যেখানে ০.৯২ শতাংশ, সেখানে রাজ্যে বৃদ্ধির হার ৫.৭৯ শতাংশ। পরিষেবা ক্ষেত্রে জাতীয় স্তরে বৃদ্ধির হার যেখানে ৫.৫৫ শতাংশ, সেখানে রাজ্যে সেই বৃদ্ধির হার ৯.২৬ শতাংশ। কৃষিক্ষেত্রে বৃদ্ধির হারে একটু হলে এগিয়ে রয়েছে বাংলা। জাতীয় স্তরে শতাংশের বিচারে যেখানে বৃদ্ধির হার যখন ৪.০৫ শতাংশ, তখন রাজ্যের বিচারে সেই বৃদ্ধির হার ৪.৭৪ শতাংশ।

রাজ্যে এসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ প্রায় সমস্ত ক্ষেত্রেই রাজ্য পিছিয়ে রয়েছে বলে বোঝাতে চেয়েছিলেন। বিঁধেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। শিল্প থেকে কৃষি, সব ক্ষেত্রেই বাংলা পিছিয়ে পড়েছে বলে দাবি করেছিলেন তিনি। বারবার বলেছিলেন, ‘সোনার বাংলা’ গড়তে সুযোগ চায় বিজেপি। কিন্তু এই দিন, তথ্য শেয়ার করে অমিত মিত্র প্রমাণ করার চেষ্টা করলেন, অমিত শাহ বা নরেন্দ্র মোদি যাই বলার চেষ্টা করুন, আদতে সবটাই মিথ্যা।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles