‘করোনার মতোই উপসর্গহীন বেইমান ছিল দলে’, শুভেন্দুকে বেনজির আক্রমণ অভিষেকের

নিউজ ডেস্ক: ‘আমার সঙ্গে তোমার তফাত মেরুদণ্ডের। তৃণমূল করতে গেলে বুকের দম লাগে। যদি দম না থাকে শাড়ি আর চুড়ি পরে বাড়িতে ঢুকে যাও।’ ডায়মন্ড হারবােরর কেল্লার মাঠের জনসভা থেকে ঠিক এভাষাতেই শুভেন্দু অধিকারীকে এক হাত নিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসর সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু তাই নয়, দম থাকলে নিজে দল গড়ে লড়াই করার জন্য শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন তিনি।

মাসখানেকের মধ্যে ফের ডায়মন্ড হারবারে সভা অভিষেকের। গত ২৯ নভেম্বর মুচিশা ময়দানের সভা থেকেও তিনি নিশানা করেছিলেন শুভেন্দুকে। তখনও শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান না করলেও তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে নিয়েছিলেন। ওই সভায় অভিষেক বলেছিলেন, ‘মায়ের সঙ্গে যারা বিশ্বাসঘাতকা করেন, তারা বেইমান।’ আর বেইমানদের সঙ্গে কী করা উচিত বলে তৃণমূল কর্মীদের উদ্দেশে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছিলেন তিনি। এরপর বিজেপিতে যোগদান করে ‘তোলাবাজ ভাইপো হটাও’ স্লোগান তুলছেন শুভেন্দু। তারই পাল্টা হিসাবে এদিন শুভেন্দুকে আগাগোড়া আক্রমণ শানান অভিষেক।

মুচিশা ময়দানের সভাতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দিলীপ, কৈলাস-সহ বিজেপি নেতাদের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেছিলেন ‘সাহস থাকলে আমার নাম নিন।’ এদিনও একই কথা শোনা গেল অভিষেকের মুখে। তবে এবার তিনি উদ্দেশ্য করলেন শুভেন্দুকেও। নাম না করে অভিষেক এদিন বলেন, ‘‘মেরুদণ্ড বিকিয়ে বিজেপিতে গিয়েছ তুমি। নারদায় টাকা নিয়েছিল তুমি। তোলাবাজ তো তুমি। আমি তোলাবাজি প্রমাণ করতে পারলে ফাঁসির মঞ্চ তৈরি করে দাও। আমি নিজে সেখানে যাবো।’ বাংলার কৃষকদের নিয়ে শুভেন্দুর মন্তব্যের পাল্টাও এদিন দেন অভিষেক। প্রশ্ন তোলেন, ‘‘দিল্লিতে আন্দোলনরত কৃষকদের কাছে যাওয়ার সাহস হচ্ছে না কেন?’’ পাশাপাশি নিজের গড় ২৪ পরগনায় ‘আগামী দিনেও ৩১ শূন্য করব’ বলেও চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ।

 

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles