নন্দীগ্রামে বিজেপির সভায় তুমুল বিশৃঙ্খলা, শান্ত করতে মাইক ধরতে হল শুভেন্দুকে

নিউজ ডেস্ক: নন্দীগ্রামে বিজেপির যোগদান মেলার সভায় তুমুল বিশৃঙ্খলা। কৈলাস বিজয়বর্গীয় জনতাকে শান্ত করতে ব্যর্থ হলে তাঁর ভাষণের মাঝেই মাইক হাতে তুলে নিলেন শুভেন্দু অধিকারী। প্রায় মিনিট দশেক ধরে চলে এই গন্ডগোল। তড়িঘড়ি ভাষণ শেষ করতে বাধ্য হন কৈলাস। আর ওইসময় অনেকটা তাড়াহুড়ো করেই দিলীপ ঘোষকে সংবর্ধনা দিতে গিয়ে মঞ্চে আর এক বিশৃঙ্খলা তৈরি হল। পরে অবশ্য নিজের বক্তব্যে দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করলেন, ভয় পেয়ে তৃণমূলের লোকেরাই নাকি এই ধরনের বিশৃঙ্খলা করেছে।

মঞ্চে তখন শাসকদলের বিরুদ্ধে একের পর এক তখন তোপ দাগছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। কীভাবে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতের জন্য কৃষকদের বিভিন্ন সুবিধা থেকে বঞ্চিত হতে হয়েছে, সেই পরিসংখ্যানই তুলে ধরছিলেন তিনি। কিন্তু মন্তব্যে হঠাৎই তাল কাটে। সভায় উপস্থিত সাধারণ মানুষ হঠাৎই নিজেদের জায়গা ছেড়ে উঠে পড়েন। চারদিক থেকে গন্ডগোলের আওয়াজ ভেসে আসে।

বিজেপি নেতা মঞ্চে দাঁড়িয়েই প্রশ্ন করতে থাকেন কী হয়েছে? ঠিক সেই সময়ই এগিয়ে আসেন শুভেন্দু অধিকারী। গন্ডগোলের কারণ তখনও স্পষ্ট হয়নি। মাইকে ক্রমাগত জনতার উদ্দেশে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘কিছু হয়নি। শান্ত হয়ে বসুন।’

কিন্তু বিশৃঙ্খলা যে তখনও না থামায় ড্যােমজ কন্ট্রোল করতে তড়িঘড়ি দিলীপ ঘোষকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। মালা পরাতে গিয়ে সে আর এক বিশৃঙ্খলা। ক্যামেরায় রাজ্য সভাপতিকেই খুঁজে পাওয়া মুশকিল হয়ে যাচ্ছিল।

এরপর ভাষণ রাখতে গিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিযোগের সুরে বলেন, ‘এত ভিড় দেখে ভয় পেয়ে যাচ্ছে তৃণমূল। সেই কারণেই সভা ভণ্ডুল করার চেষ্টা করছে“ এরপরই যোগ করেন, ‘কিন্তু আপনারা যে সভায় শৃঙ্খলা বজায় রেখেছেন, তৃণমূলের উদ্দেশ্য পূরণ হতে দেননি, এর জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাই।’

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles