‘স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করার সুযোগ পেলে আমিও করব’ সুর নরম দিলীপের

নিউজ ডেস্ক: ‘স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করার সুযোগ পেলে আমিও করব’ বিজেপির রাজ্য সভাপতির গলায় অন্য সুর। একদিন আগেই তাঁর পরিবারের সদস্যদের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করানো নিয়ে শাসকদলের কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছিল দিলীপ ঘোষকে। এবার পরিবারের সঙ্গে তিনিও যে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড কারাতে ইচ্ছুক তাও বুঝিয়ে দিলেন।

দিলীপ ঘোষ তার পরিবারের লোকেদের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করানো নিয়ে বলেন তিনি কার্ডের বিরোধিতা করছেন না। তবে সরকারকে বিরোধিতা করছেন। এমনকী তিনি নিজেও যে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করাতে ইচ্ছুক সেই কথাও বলেন তিনি। পাশাপাশি নিজের অবস্থানে অনড় থেকে তিনি প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, ‘কার্ড মিলল অথচ সুযোগ মিলল না , তাহলে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড মাথায় নিয়ে শুয়ে থাকলে কি জ্বর কমবে’?
উল্লেখ্য, রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের আদি বাড়ি ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুরের কুলিয়ানা গ্রামে। ভাই হীরক ঘোষ গোপীবল্লভপুর ২ নম্বর ব্লকের বিজেপির মণ্ডল সভাপতি। খুড়তুতো ভাই সুকেশ ঘোষ জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি। তাই স্বাভাবিকভাবেই দিলীপ ঘোষের পাশাপাশি তাঁর ভাইদের গলায়ও সর্বদাই শোনা গেছে মুখ্যমন্ত্রী বিরোধী সুর।

স্বাস্থ্যসাথী কার্ড প্রসঙ্গেও বারবার রাজ্যকে নিশানা করতে দেখা গিয়েছে তাঁদের। এরমধ্যেই কিছুদিন আগে যেখানে গোপীবল্লভপুরের কুলিয়ানা এলাকার বাসিন্দাদের স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের ছবি তোলা হচ্ছে, সেখানে দেখা যায় হীরক ঘোষের স্ত্রী-সহ পরিবারের বেশ কয়েকজনকে। বঙ্গবিজেপির প্রথম সারির নেতাদের লাইনে দাঁড়িয়ে কার্ড করাতে দেখে স্বাভাবিকভাবেই আলোচনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।


গত কয়েকদিন আগে লাইনে দাঁড়িয়ে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড নিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন অবশ্য বিজেপি সেটাকে নাটক বলেছে। এবার দিলীপ ঘোষের পরিবারের হাতে তৃণমূল সরকারের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেখে কী বলবে বিজেপি তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles