ধূপগুড়িকে মহকুমা করার দাবি বিধায়কের

নিউজ ডেস্ক : ধূপগুড়িকে মহকুমা করার দাবিতে এবার মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হতে চলেছেন বিধায়ক মিতালী রায়। ধূপগুড়ি মহকুমার নাগরিক মঞ্চের দাবিপত্র নিয়ে কলকাতার উদ্দ্যেশ্যে রওনা দিয়েছেন তিনি। এই দাবিতে আগামী ৩ রা জানুয়ারি ধূপগুড়ি থেকে চামুর্চি পর্যন্ত বাইক র‌্যালি করবে ধূপগুড়ি মহকুমা নাগরিক মঞ্চ।
ধূপগুড়িকে মহকুমা করার দাবি ক্রমশ জোরদার হচ্ছে। ধূপগুড়ি মহকুমা নাগরিক মঞ্চের পক্ষ থেকে দাবির সমর্থনে পোস্টার, ব্যানার লাগানো হয়েছে। পোস্টারে লেখা রয়েছে, ধূপগুড়িকে অবিলম্বে মহকুমা ঘোষণা করতে হবে। গত ১০ বছর ধরে রাজ্যের অন্যতম বৃহত্তম ব্লক ধূপগুড়িকে মহকুমা ঘোষণার দাবি উঠছে। ২০১২ সালে তৎকালীন ধূপগুড়ির বিধায়ক মমতা রায় বিধানসভায় মহকুমা করার প্রস্তাবটি উত্থাপন করলেও কার্যকর হয়নি। এবিষয়ে ধূপগুড়ি মহকুমা নাগরিক মঞ্চের সম্পাদক অনিরুদ্ধ দাশ গুপ্ত বলেন, “ধূপগুড়িকে মহকুমা করার দাবি দীর্ঘদিনের, আমরা বহুদিন থেকেই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি। সামনে বিধানসভা নির্বাচন, ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী বানারহাটকে পৃথক ব্লক ঘোষণা করেছেন। আমরা চাই এবার নির্বাচনের আগেই ধূপগুড়ি ব্লককে এবং বানারহাটকে মিলিয়ে মহকুমা করা হোক। আমাদের এই দাবিপত্র মুখ্যমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন ধূপগুড়ির বিধায়ক মিতালী রায়। আমরাআশা রাখছি তাঁর হাত দিয়েই ধূপগুড়ি মহকুমা স্বীকৃতি লাভ করবে।” এসডিও অফিসে কোনও জরুরি কাজের জন্য ধূপগুড়ি, চামুর্চি, ভুটান সীমন্তের মানুষকে প্রায় ৯০ কিলোমিটার পথ পেরিয়ে জলপাইগুড়ি যেতে হয়।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles