Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

চার লেনের নয়া টালা সেতুর নকশায় অনুমোদন দিল রেল

নিউজ ডেস্ক: চার লেনের ৬১০ মিটার দীর্ঘ টালা সেতুর নয়া নকশায় অনুমোদন দিল পূর্ব রেল। যদিও অনুমোদনের অপেক্ষা না করেই, মাস কয়েক আগে রেল লাইনের অংশ বাদ রেখে সেতু নির্মানের কাজ শুরু করে দিয়েছে লারসেন এন্ড টুব্রো। তবে এখনও রেলের সেফটি কমিশনার থেকে শুরু করে অনেকগুলি ধাপেই দ্রুত অনুমতি জরুরি বলে জানানো হয়েছে রাজ্য পূর্ত দফতরের তরফে। সব কিছু ঠিক থাকলে নয়া টালা ব্রিজের নির্মাণ ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে সম্পূর্ণ হতে চলেছে।

পুরোনো তিন লেনের টালা ব্রিজটি প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ বিধানচন্দ্র রায়ের উদ্যোগে তৈরি হয়ে চালু হয় ১৯৬২ সালে। মাঝেরহাটের পর এবার দ্বিতীয় হুগলি সেতুর ধাঁচেই উত্তরের টালাতেও ঝুলন্ত সেতু তৈরি হচ্ছে। পুরোনো টালা ব্রিজে লাইনের মাঝে পিলার ছিল, কিন্তু এবার লাইনের উপরে ২৪০ মিটার অংশের পুরোটাই কেবলের উপরে ঝুলবে। দফায় দফায় রাজ্য সরকারের সঙ্গে বৈঠক ও পর্যবেক্ষণ শেষে চার লেনের ৬১০ মিটার দীর্ঘ টালা সেতুর নয়া নকশা অনুমোদন করেছে পূর্ব রেল। পুরনো সেতুটির ভারবহনের সক্ষমতা ছিল মাত্র ১৫০ টন। নয়া কেবল ব্রিজটি সর্বোচ্চ ৩৮৫ টন ভারবহন করতে পারবে। ইন্ডিয়ান রোড কংগ্রেসের নয়া সিদ্ধান্ত মেনে নয়া ব্রিজটি যুদ্ধের সাঁজোয়া গাড়ি বা ট্যাঙ্কের ভারবহনও করতে পারবে। অনুমোদিত নকশায় পাইকপাড়া দিকে সেতুর অ্যাপ্রোচ ১৯০ মিটার এবং চিৎপুরের দিকে ১৮৭ মিটার অ্যাপ্রোচ থাকছে। ঝুলন্ত অংশ ছাড়াও সেতুর অবশিষ্ট ১৮০ মিটার পিলারের উপর থাকছে।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে টালা ব্রিজে গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দিয়ে পুরোনো বিপজ্জনক সেতুটি ভেঙে ফেলেছে। লাইনের উপরের অংশ ভাঙতে রেল রাজ্য সরকারের কাছ থেকে ৫৫ লাখ টাকা নিয়েছে। গত ২২ ডিসেম্বর প্রাথমিকভাবে ব্রিজ তৈরির জন্য নকশার অনুমোদন করেছে রেল। গত ১৪ ডিসেম্বর রাজ্য সরকারের পূর্ত দপ্তরের সঙ্গে রেলের ইঞ্জিনিয়াররা বৈঠক করেন। বিষয়টি নিয়ে অবশ্য পূর্তমন্ত্রীর মন্তব্য, “এটা তো শুধু নকশায় অনুমোদন। যেহেতু ওই ব্রিজের নিচ দিয়ে কলকাতা স্টেশনের ট্রেন যাতায়াত করবে তাই রেলের সেফটি কমিশনার থেকে শুরু করে অনেকগুলি ধাপেই দ্রুত অনুমতি জরুরি।” পূর্ত দপ্তর সূত্রে খবর, সব কিছু ঠিক থাকলে উত্তর কলকাতা ও উত্তর শহরতলির অন্যতম ‘লাইফ লাইন’ নয়া টালা ব্রিজের নির্মাণ ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে সম্পূর্ণ হবে।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles