নাড্ডার সফরের পরদিনই রাজনৈতিক সংঘর্ষ বর্ধমানে, নামানো হল র‍্যাফ

নিউজ ডেস্ক: নাড্ডার সফরের পরের দিনই তুমুল রাজনৈতিক সংঘর্ষ বর্ধমানে। তৃণমূলের মিছিলে হামলার অভিযোগ ওঠে বিজেপির িবরুেদ্ধ। একের পর এক তৃণমূলের পার্টি অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় কাঠগড়ায় বিজেপি। বিজেপি সদস্যদের পালটা অভিযোগ, তৃণমূলের মহামিছিলে যোগ দেওয়ার জন্য নাকি দলের কর্মীরা তাঁদের উপর চাপ তৈরি করছিলেন। সেখান থেকে বাকবিতণ্ডা শুরু, যা শেষমেশ হাতাহাতিতে পৌঁছয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় শক্তিগড় থানার পুলিশ ও র‍্যাফ।

শনিবার বর্ধমান শহরে রোড শো করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। রবিবার তার পাল্টা মিছিলের ডাক দিয়েছিল তৃণমূল। ওই একই রুটে প্রায় ৫ কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে মহামিছিলের ডাক দিয়েছে তৃণমূল। তাতে নেতৃত্ব দেওয়ার কথা টলিউড অভিনেতা তথা যুব তৃণমূলের যুগ্মসচিব সোহমের। মিছিল শুরু হওয়ার নির্ধারিত সময় বিকেল সাড়ে তিনটে। কিন্তু মিছিল শুরুর আগেই তুমুল অশান্তি। প্রথমে শক্তিগড় থানার বামচাঁদাইপুরে অতর্কিতে হামলার অভিযোগ ওঠে বিজেপির বিরুদ্ধে। কর্মীদের মারধর করে তৃণমূলের পার্টি অফিস ভাঙচুর করা হয় বলেও অভিযোগ ওঠে।

তৃণমূলের স্থানীয় ব্লক সভাপতি শেখ আজাদ রহমানের অভিযোগ, ”ওরা বহিরাগতকে নিয়ে মিছিল করেছিল। আমরা আপত্তি তুলিনি। আমাদের মিছিলে ওরা বাধা দিচ্ছে। পার্টি অফিস ভাঙচুর করে আমাদের মনোবল ভাঙার চেষ্টা করছে। প্রশাসনকে বলব, অবিলম্বে ব্যবস্থা নিতে।” বিজেপি সদস্যদের পালটা অভিযোগ, তৃণমূলের মহামিছিলে যোগ দেওয়ার জন্য নাকি দলের কর্মীরা তাঁদের উপর চাপ তৈরি করছিলেন। সেখান থেকে বাকবিতণ্ডা শুরু, যা শেষমেশ হাতাহাতিতে পৌঁছয়।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles