‘বিশ্বাসঘাতকতা করলেন শুভেন্দু’

নিউজ ডেস্ক: শুভেন্দু অধিকারী ‘বিশ্বাসঘাতকতা’ করলেন। বুধবার বিধানসভায় গিয়ে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পরই শুভেন্দু অধিকারী প্রসঙ্গে এমনই ব্যাখ্যা করছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্য, দুষ্টু গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভাল। সাংসদ সৌগত রায়ের মন্তব্য, সামান্য পদ পাওয়ার আশায় চলে গেলেন শুভেন্দু।

জল্পনা চলছিল অনেক দিন ধরেই। কম জলঘোলাও হয়নি শুভেন্দু অধিকারীকে নিেয়। দফায় দফায় বৈঠক করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। মন্ত্রী পদ থেকে সরে যাওয়ার পরও একবার সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে প্রশান্ত কিশোর এবং দলের বর্ষীয়ান সাংসদ সৌগত রায়ের সঙ্গে তাঁর দীর্ঘ বৈঠক হয়। সেই বৈঠকের পরও সৌগত রায় আশাপ্রকাশ করেছিলেন যে সমস্যা মিটে যাবে। কিন্তু দলের অভ্যন্তরীণ বৈঠকের কথা কেন তিনি প্রকাশ্যে এনেছেন, তা নিয়ে সৌগতর প্রতি তীব্র ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছিলেন শুভেন্দু।

হোয়াটসঅ্যাপ করে এ নিয়ে সৌগত রায়কে দুঃখপ্রকাশ করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। স্পষ্ট জানিেয়ছিলেন, “এভাবে একসঙ্গে কাজ করা সম্ভব নয়।” এরপর সতীশ সামন্ত স্মৃতি সভায় বহিরাগত তত্ত্ব নিেয় তৃণমূলকেই একহাত নিয়েছিলেন শুভেন্দু। মঙ্গলবারই প্রকাশ্যে চলে আসে শুভেন্দুর বিজেপি যোগদানের কথা। এরপর বুধবার দুপুরে কাঁথির বাড়ি থেকে কলকাতা আসেন তিনি। এরপরই বিধানসভায় গিয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেন।

নন্দীগ্রাম আন্দোলনের নেতা শুভেন্দুর বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার খবর পেতেই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীকে কটাক্ষ করে সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলে দেন, “সব ভোগ করার পর এখন ছেড়ে চলে যাচ্ছে। দুষ্টু গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভাল। এরকম যতজন চলে যেতে চাইবে যাক। যত তাড়াতাড়ি যায় ততই ভাল।” কড়া ভাষায় প্রতিক্রিয়া জানান তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ও। বলে দেন, “শুভেন্দু বিশ্বাসঘাতকতা করল। আমাদের সঙ্গে বৈঠকও করেছিল। কিন্তু পরে বলে দেয় একসঙ্গে কাজ করা সম্ভব নয়। জানি, ও বিজেপির সঙ্গে কথা বলেছে। পদ পাওয়ার আশ্বাস পেয়েই চলে গিয়েছে।” সূত্রের খবর, আগামী শনিবারই বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী।

যদিও শুভেন্দুর পদত্যাগকে স্বাগত জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, “আজকের পর শুভেন্দুর পদ্মশিবিরে আসার আশাই আরও উজ্জ্বল হল। এভাবেই মে মাসে বাংলাকে তৃণমূলমুক্ত করতে চাই আমরা।” একই সুর মুকুল রায়ের গলাতেও। বলে দেন, “বাংলায় গণ আন্দোলনের ক্ষেত্রে এটা একটা বড় সিদ্ধান্ত। ওঁর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই।’’

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles