Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

‘তৃণমূল এখন জেহাদিদের আখড়া’, দাঁতনে বিস্ফোরক শুভেন্দু

নিউজ ডেস্ক: ‘তৃণমূল এখন জেহাদিদের আখড়া হয়ে উঠেছে। ডায়মন্ড হারবারে বুথের সামনে জেহাদিদের বসিয়ে রেখেছিল। তাই জিততে পেরেছিল।’ দাঁতনের রোড শো থেকে ফের বিস্ফোরক শুভেন্দু অধিকারী। এদিন আবারও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে ‘তোলাবাজ ভাইপো হটাও’ স্লোগান তোলেন শুভেন্দু। পাশাপাশি ‘বিশ্বাসঘাতক’ ইস্যুতে আক্রমণ করলেন সৌগত রায়কেও।

এদিন দাঁতনে রোড শোর পর শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘‘ছিন্নমূলের লোকেরা এখানে এসে বড়বড় কথা বলে গিয়েছে। লোকসভা ভোটের পর কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি, সব নেতারা সুইচ অফ করে দিয়েছিল।’’ এরপরই তিনি দাবি করেন, ২০০৩-এর পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূল উঠে গিয়েছিল। বিজেপির বদান্যতায় ২০০৯-এর লোকসভা ভোটে ১টা সাংসদে এসে দাঁড়ায়। মুখ্যমন্ত্রী থেকে সব মন্ত্রী দক্ষিণ কলকাতার। তা নিয়েও নিজের অভিমান ব্যক্ত করলেন শুভেন্দু। বলেন, ‘‘৩-৪টে লোকের হাতে সব মন্ত্রিত্ব, আমরা সব বানের জলে ভেসে এসেছি? এই লড়াই গ্রামের লড়াই শহরের সঙ্গে।’’

দাঁতনে হরে কৃষ্ণ বলে, ভগবান জগন্নাথকে প্রণাম জানিয়ে তিনি নিজের বক্তব্য শুরু করেন শুভেন্দু। দেন ভারত মাতা জয়ের স্লোগান। তিনি তৃণমূলকে আক্রমণ করে বলেন, কেন্দ্র সরকারের প্রকল্পের উপর নিজেদের নাম দিয়ে উন্নয়নের কথা বলছে তৃণমূল সরকার। তৃণমূলের সাংসদ সৌগত রায়কে একহাত নিয়ে বলেন, ‘‘একজন বলেছেন মেদিনীপুরে বিশ্বাসঘাতক জন্মায়। আমি ওনাকে বলতে চাই, এখানে বর্ণপরিচয়ের স্রষ্টা জন্মেছিলেন যার কারণে আপনি নিজের নামটা আজ লিখতে পারছেন। তিনি বলেন, এখানে ক্ষুদিরাম বসু জন্মেছিলেন, যিনি দেশের জন্য আত্মবলিদান দিয়েছিলেন। এখানে মাতঙ্গিনী হাজরা জন্মেছিলেন, যিনি দেশ স্বাধীনের জন্য নিজের প্রাণ দিয়েছিলেন।’’

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles