নতুন বছরের শুরুতেই প্রতিশ্রুতি পূরণ মুখ্যমন্ত্রীর, বিশ্বভারতীকে দেওয়া রাস্তা ফিরিয়ে নিল রাজ্য

নিউজ ডেস্ক: নতুন বছরের প্রথম দিনেই প্রতিশ্রুতি পূরণ। বিশ্বভারতীকে দেওয়া রাস্তা ফিরিয়ে নিল রাজ্য সরকার। শুক্রবার সকালেই কালীসায়র থেকে উপাসনা মন্দির পর্যন্ত রাস্তার দখল নিল বীরভূম জেলা প্রশাসন। স্থানীয় বাসিন্দাদের উপস্থিতিতে রবীন্দ্র সংগীতের মাধ্যমে যেন আরও একবার উদ্বোধন হল রাস্তাটি।

সোমবারই বোলপুরের প্রশাসনিক বৈঠক থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন, বিশ্বভারতীকে পিডব্লুডি-র রাস্তার একটি অংশ দেওয়া হয়েছিল, ওই রাস্তায় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ সাধারণের যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছিল। তা আবার ফিরিয়ে নিচ্ছে রাজ্য সরকার। ওই রাস্তায় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ সাধারণের যাতায়াত বন্ধ করে দেওয়ার অসুবিধায় পড়েছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের আবেদন মেনেই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর নতুন বছরের শুরুতেই সমস্ত নিয়মকানুন মেনে রাস্তার দখল নিল পুলিশ তথা বীরভূম জেলা প্রশাসন।

উপাসনা মন্দির থেকে কালীসায়র মোড় পর্যন্ত রাস্তাটির জন্য ৬ কোটি এবং শ্যামবাটি থেকে শিক্ষাভবন মোড় পর্যন্ত রাস্তার জন্য ১৬ কোটি বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার। বর্তমানে শ্যামবাটি থেকে শিক্ষাভবন মোড় পর্যন্ত রাস্তাটি তৈরির কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ ছিল, বিদ্যুৎ চক্রবর্তী উপাচার্য হয়ে আসার পর উপাসনা মন্দির থেকে কালীসায়র মোড় পর্যন্ত রাস্তাটিতে একাধিক নির্দেশিকা জারি করে বিশ্বভারতী। সাধারণের প্রবেশ নিষেধ করে দেওয়া হয়েছিল। যা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনও। বর্তমানে তাঁর বাড়ির কিছুটা অংশ বিশ্বভারতীর বলে বিতর্ক জারি রয়েছে।

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles